16 Mahajanapadas : ষোড়শ মহাজনপদ

16 mahajanapadas
ষোড়শ মহাজনপদ  : 16 Mahajanapadas

16 Mahajanapadas

কোথা থেকে খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকে ভারতের ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারি ?

উঃ- বৌদ্ধগ্রন্থ অঙ্গুত্তরনিকা, জাতক ও জৈন ভগবতী সূত্র থেকে।

‘ষোড়শ মহাজনপদ’ কি ?

উঃ- খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকের সমসাময়িক সময়ে ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে ষোলটি মহাজনপদের অস্তিত্ব ছিল। এগুলিকে ‘ষোড়শ মহাজনপদ’ নামে উল্লেখ করা হয়।

‘ষোড়শ মহাজনপদ’ -এর নামগুলি কি কি ?

উঃ- কাশি (বারাণসী), কোশল (অযোধ্যা), অঙ্গ (পূর্ব-বিহার), মগধ (দক্ষিণ-বিহার), বৃজি (উত্তর-বিহার), মল্ল (মালব), চেদী (বুন্দেলখন্ড), বৎস (এলাহাবাদ), কুরু (দিল্লি), পাঞ্চাল (রোহিলাখন্ড), মৎস (জয়পুর), শূরসেন (যমুনা নদীর তীরবর্তী রাজ্য), অস্মক (গোদাবরী তীরবর্তী অঞ্চল), অবন্তী (মধ্যে ভারত), গান্ধার (পেশোয়ার) এবং কম্বোজ (গান্ধারের নিকটবর্তী রাজ্য)।

ষোড়শ মহাজনপদগুলি প্রধানত ভারতবর্ষের কোন এলাকায় গড়ে উঠেছিল ?

উঃ- উত্তরপ্রদেশ, বিহার ও মধ্যপ্রদেশে।

দক্ষিণ ভারতের একমাত্র জনপদ কোনটি ?

উঃ- অস্মক।

ষোড়শ মহাজনপদগুলির মধ্যে প্রধানগুলি ছিল ?

উঃ- কোশল, অবন্তী, বৎস এবং মগধ।

কোন মহাজনপদে গৌতম বুদ্ধ মারা গিয়েছিলেন?

উঃ- মল্ল।

ভারত আক্রমণকারী প্রথম বিদেশি কে?

উঃ- দারিয়াস I (Darius I) । 

মালওয়া অঞ্চলে অবস্থিত উজ্জয়িনী। এটি কোন মহাজনপদের অধীনে আসে?

উঃ- অবন্তী।

তক্ষশীলা কোন প্রাচীন মহাজনপদের রাজধানী ছিল?

উঃ- গান্ধার।

উত্তরপথ  ও দক্ষিণপথের সংযোগস্থলে কোন শহরটি অবস্থিত?

উঃ- মথুরা।

বিখ্যাত মথুরা শহরটি কোন প্রাচীন মহাজনপদের রাজধানী ছিল?

উঃ- শূরসেন।

উত্তর পাঁচালের  রাজধানী কি ছিল ?

উঃ- অহিচ্ছত্র।

প্রাচীন ইন্দ্রপ্রস্থ কোন মহাজনপদের রাজধানী ছিল ? 

উঃ- কুরু।

মৎস্য মহাজনপদের রাজধানী বিরাটনগর কোন অঞ্চলে অবস্থিত?

উঃ- জয়পুর।

পুষ্কলাবতী কোন রাজ্যের রাজধানী ছিল?

উঃ- গান্ধার।

কোন বৌদ্ধগ্রন্থে ষোড়শ মহাজনপদ সম্পর্কে কথা বলা হয়েছে?

উঃ- অঙ্গুত্তর নিকয়।

নিচের কোন মহজনপদ গোদাবরী নদীর তীরে অবস্থিত?

অস্মক।

শ্রাবস্তী কোন মহাজনপদের রাজধানী ছিল?

উঃ- কোশল।

উত্তরপথ ও দক্ষিণপথ এর সংযোগস্থলে কোন মহাজনপদ অবস্থিত ছিল ?

উঃ- শূরসেন।

রাজা প্রসেনজিত ছিলেন ভগবান বুদ্ধের সমসাময়িক এবং বন্ধু। তিনি কোথাকার রাজা ছিলেন?

উঃ- কোশল।

তক্ষশিলার দুইপাশে কোন দুটি নদী প্রবাহিত হয়েছে ?

উঃ- সিন্ধু (Indus) ও ঝিলাম।

কোন শহরটি প্রাচীন ভারতের অবন্তী নামে পরিচিত ছিল?

উঃ- উজ্জ্বয়িনী।

বৎস মহাজনপদের রাজধানী কি ছিল?

উঃ- কৌশম্বী।

উত্তর বিহারের পুরানো নাম কি ছিল ?

উঃ- বৃজি বা ভাজ্জি ।

পূর্ব ভারতে কোন জনপদটি অবস্থিত ছিল ?

উঃ- পূর্ব ভারতে কোন মহাজনপদ ছিল না ।

16 mahajanapadas map

** ষোড়শ মহাজনপদ এবং তার রাজধানী ও অবস্থান  :-

কাশি

এর রাজধানী ছিল বেনরস। কাশী গঙ্গা ও গোমতী নদীর সঙ্গমস্থলে এবং আজকের বারাণসীর আশেপাশে অবস্থিত ছিল।

কোশল

কোশল রাজ্যের রাজধানী শ্রাবস্তী। কোশল একটি বৃহৎ রাজ্য ছিল। এতে অযোধ্যা, সাকেত ও শ্রাবস্তী এই তিনটি প্রধান নগরী ছিল। অযোধ্যা ছিল সরযু নদীর তীরবর্তী একটি নগরী। অযোধ্যা এবং সাকেত কে অনেক সময় অভিন্ন মনে করা হয়। কিন্তু রিস ডেভিডস উল্লেখ করেছেন যে গৌতম বুদ্ধের সময়ে দুইটি নগরীর স্বতন্ত্র অস্তিত্বের কথা জানা যায়। শ্রাবস্তীর বর্তমান নাম সাহেত-মাহেত। এর অবস্থান ছিল রাপ্তি নদীর দক্ষিণ তীরে।

পালি ভাষায় শ্রাবস্তী হল সাবত্থি। বৌদ্ধ ঐতিহ্য বলে, সাবত্থি নগরীতে সাধু সাবত্থা বাস করতেন বলেই ঐ নাম।

গন্ধকুটির :- গৌতম বুদ্ধের ব্যবহারের জন্য সুদত্ত গন্ধকাষ্ঠ দিয়ে একটি কুটির নির্মাণ করেন, যা বৌদ্ধ সাহিত্যে গন্ধকুটির নামে সুবিখ্যাত।

অঙ্গ

এর রাজধানী ছিল চম্পা। এটি বর্তমানে বিহারের মুঙ্গের এবং ভাগলপুরের জেলাগুলি জুড়েছিল। এটি পরে বিম্বিসার দ্বারা মগধে সংযুক্ত করা হয়েছিল।এটি গঙ্গা ও চম্পা নদীর সঙ্গমস্থলে গড়ে উঠেছিল।পরে বিম্বিসার কর্তৃক এটি মগধের অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল।

ষোড়শ মহাজনপদের বাকি অংশ আপডেট চলছে। সাইটে নজর রাখুন
General Study
History

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *